ছাত্রীদের কুপ্রস্তাব ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে অভিযুক্ত সেই আলোচিত শিক্ষক এখন জীবননগর পাইলট স্কুলের প্রধান শিক্ষক

553

ছাত্রীদের কুপ্রস্তাব ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে অভিযুক্ত সেই আলোচিত শিক্ষক এখন জীবননগর পাইলট স্কুলের প্রধান শিক্ষক।

নিজস্ব প্রতিবেদ,
ছাত্রীদের কুপ্রস্তাব ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে অভিযুক্ত সেই আলোচিত শিক্ষক এখন জীবননগর মডেল পাইলট স্কুলের প্রধান শিক্ষক, ঘটনার বিবরণী জানা যায়, ২০১৬ সালে আলহেরা ইসলামী ইনস্টিটিউট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তৎকালীন কম্পিউটার শিক্ষক আবু সালেহ্ মুসা’র বিরুদ্ধে একাধিক ছাত্রীর পক্ষ থেকে প্রধান শিক্ষক বরাবর একটি অভিযোগ দেন তৎকালীন ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী শারমিন আক্তার, অভিযোগে ঐ ছাত্রী জানান, দীর্ঘদিন যাবত আবু সালেহ্ স্যার বিভিন্ন সময়ে আমাদের কে কম্পিউটার রুমে নিয়ে গিয়ে কিংবা সুযোগ পেলেই অশালীন কথাবার্তা এবং অশ্লীল প্রস্তাব দেয় তার প্রস্তাব মেনে না নিলে আমাদের উপর বিভিন্ন প্রকার হুমকি এবং নির্যাতন চালানো হয় আমাদের ক্লাসের অনেক মেয়েকে এ ধরনের প্রস্তাব দেয়, এই ঘটনা জানাজানি হলে অভিভাবক ও এলাকার বাসিন্দারা এর বিচার দাবি করেন,
স্কুল ম্যানেজিং কমিটিও একটি সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেয় কিন্তু প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামালের সহযোগিতায় আবু সালেহ্ পার পেয়ে যান, এই ঘটনা থেকে বাঁচার জন্য প্রধান শিক্ষকের নিকট আবু সালেহ্ সহযোগিতা চান, প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল তাকে বলেন, যদি আপনি স্কুল থেকে অব্যাহতি নেন তাহলে আমরা আপনার বিচার করবো না আর যদি না নেন তাহলে আপনাকে আমরা বহিষ্কার করবো! প্রধান শিক্ষকের পরামর্শে আবু সালেহ্ অব্যাহতি নিয়ে পারমথুরাপুর স্কুলে যুক্তহন তারপর পর্যায় ক্রমে জীবননগর মডেল পাইলট স্কুলে প্রধান শিক্ষক হিসাবে যুক্তহন, এমন ন্যাকারজনক আলোচিত ঘটনার পরেও কিভাবে তার উত্তর উত্তর প্রোমোশন হচ্ছে তা নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠেছে। সম্প্রতি এই ঘটনা তদন্তকালে এই প্রতিবেদক তথ্য অধিকার ফরমে উক্ত ঘটনা জানতে চাইলে অনেক তালবাহানা করার পর প্রধান শিক্ষক তথ্য সরবরাহ করতে বাধ্যহন, সেই ছাত্রী অভিযোগের আবেদন এই প্রতিবেদক এর হাতে এসেছে, এ ব্যাপারে আবু সালেহ্ মুসা আর নিকট জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, আমার বিরুদ্ধে কি অভিযোগ তা আমি জানিনা, একদিন প্রধান শিক্ষক ডেকে বললেন আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে আমি জিজ্ঞাসা করলাম কি অভিযোগ তিনি তা আমাকে বললেন না তারপর আমি চাকরি ছেড়ে চলে আসি।
আর আপনারা যদি সেই ঘটনা নিয়ে নিউজ করেন তবে আপনাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here